Home / বাজার বিশ্লেষণ / আশ্বাসেও কাজ হলো না: আতঙ্কে বড় দর পতন

আশ্বাসেও কাজ হলো না: আতঙ্কে বড় দর পতন

ডেইলি শেয়ারবাজার রিপোর্ট: করোনা পরিস্থিতিতে ব্যাংক খোলা থাকলে পুঁজিবাজারও খোল থাকবে। পুঁজিবাজার নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিনিয়োগকারীদের স্বার্থ রক্ষায় এমন সিদ্ধান্ত নিলেও তা কাজে আসেনি। সরকার ঘোষিত সাত দিনের লকডাউন শুরু হচ্ছে সোমবার। এই আতঙ্কে আজ সপ্তাহের প্রথম কার্যদিবস রোববার পুঁজিবাজারে বড় দর পতনের হয়েছে।

ডিএসই সূত্রে জানা যায়, আজ ৪ এপ্রিল ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ৩.৪৪ শতাংশ বা ১৮১.৫৪ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৫ হাজার ৮৮.৯৮ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ৩৬.৩৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ১৬৬.১৬ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ৮২.১৭ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১ হাজার ৯০১.১২ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ৩২৪টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ৭টির, কমেছে ২৫১টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ৬৬টির। সারাদিনে ডিএসইতে ১৬ কোটি ৭৮ লাখ ৭৬ হাজার ২৪টি শেয়ার ১ লাখ ২১ হাজার ৫৩৬ বার হাতবদল হয়। আর দিন শেষে লেনদেন হয় ৫২১ কোটি ১৭ লাখ ২৬ হাজার টাকা।

গত ১ এপ্রিল ডিএসই’র ব্রড ইনডেক্স আগের দিনের চেয়ে ০.১৪ শতাংশ বা ৭.৬৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ৫ হাজার ২৭০.৫৩ পয়েন্টে। আর ডিএসই শরিয়াহ সূচক ১.৬৩ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১ হাজার ২০২.৫৩ পয়েন্টে এবং ডিএসই ৩০ সূচক ১১.১০ পয়েন্ট কমে অবস্থান করে ১ হাজার ৯৮৩.৩০ পয়েন্টে। আর দিন শেষে লেনদেন হয় ৪৫১ কোটি ৩৩ লাখ ৭২ হাজার টাকা।

সে হিসেবে আজ লেনদেন বেড়েছে ৬৯ কোটি ৮৩ লাখ ৫৪ হাজার টাকা।

এদিকে দিন শেষে চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জে (সিএসই) সাধারণ মূল্য সূচক সিএএসপিআই ৩.৫৫ শতাংশ বা ৫৪২.০৬ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ১৪ হাজার ৭১৪.৩৪ পয়েন্টে। এছাড়া সিএসসিএক্স ৩.৫২ শতাংশ বা ৩২৪.৬৯ পয়েন্ট কমে অবস্থান করছে ৮ হাজার ৮৭৮.৩৬ পয়েন্টে। দিনভর লেনদেন হওয়া ২১৬টি কোম্পানি ও মিউচ্যুয়াল ফান্ডের মধ্যে দর বেড়েছে ১৩টির, কমেছে ১৮৪টির এবং অপরিবর্তিত রয়েছে ১৯টির। আর দিন শেষে লেনদেন হয়েছে ৭৫ কোটি ৩৮ লাখ ৯১০ টাকা।

ডেইলি শেয়ারবাজার ডটকম/এম এইচ

Check Also

২ কার্যদিবস পর পুঁজিবাজারে উত্থান: বেড়েছে লেনদেন

ডেইলি শেয়ারবাজার রিপোর্ট: টানা ২ কার্যদিবস পুঁজিবাজারে ব্যাপক দরপতনের পর আজ সপ্তাহের দ্বিতীয় কার্যদিবসে সূচকের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *