Home / অনুসন্ধানী রিপোর্ট / ৬ ফান্ডের আর্থিক প্রতিবেদনে ছল-চাতুরি: ইপিইউ’তে কারসাজি

৬ ফান্ডের আর্থিক প্রতিবেদনে ছল-চাতুরি: ইপিইউ’তে কারসাজি

ডেইলি শেয়ারবাজার রিপোর্ট: যে পরিমাণ প্রভিশন রাখার কথা তা না রেখে আর্থিক প্রতিবেদনে ছল-চাতুরি করে ইউনিট প্রতি আয়ে (ইপিইউ) ব্যাপক পরিবর্তন করেছে পুঁজিবাজারের ৬ মিউচ্যুয়াল ফান্ড। দেখা গেছে, যেখানে প্রকৃত আর্থিক প্রতিবেদনের চিত্র লোকসান হওয়ার কথা সেখানে ফান্ডগুলোতে মুনাফা দেখানো হয়েছে। ফান্ডগুলো হলো: প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, আইএফআইএল ইসলামিক মিউচ্যুয়াল ফান্ড-০১, আইসিবি এমসিএল সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড, আইসিবি এমসিএল থার্ড এনআরবি ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড,আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড:ওয়ান এবং ফনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড।

প্রতিটি ফান্ডের সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসেবে দায়িত্ব পালন করছে আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড। সম্প্রতি ফান্ডগুলোর নিরীক্ষক যে প্রতিবেদন দিয়েছে তার বিস্তারিত তথ্য নিম্নে তুলে ধরা হলো:

প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড:

৩১ ডিসেম্বর, ২০১৯ সমাপ্ত অর্থবছরে প্রাইম ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড প্রভিশন রেখেছে ১২ কোটি ২৫ লাখ ২৯ হাজার ৫১১ টাকা। কিন্তু ফান্ডটির প্রয়োজন অনুযায়ী প্রভিশন রাখা দরকার ছিল ১৮ কোটি ১৭ লাখ ৮০ হাজার ৮১১ টাকা। এক্ষেত্রে ফান্ডটির শর্টফল প্রভিশন দাঁড়িয়েছে ৫ কোটি ৯২ লাখ ৫১ হাজার ৩০০ টাকা।

যদি ফান্ডটি নিয়মানুযায়ী সম্পূর্ণ প্রভিশন রাখতো তাহলে নিট লোকসান হতো ৪ কোটি ৩৮ লাখ ৪২ হাজার ১৮৬ টাকা এবং ইউনিট প্রতি লোকসান (ইপিইউ) দাঁড়াতো ২.১৯ টাকা। কিন্তু ফান্ডটি তাদের ইচ্ছেমতো প্রভিশন রাখার কারণে নিট লোকসানের স্থলে  মুনাফা দাঁড়িয়েছে ১ কোটি ৫৪ লাখ ৯ হাজার ১১৪ টাকা এবং ইউনিট প্রতি লোকসানের স্থলে ইপিইউ দেখিয়েছে ০.৭৭ টাকা। অর্থাৎ সঠিকমতো প্রভিশন না রেখে ফান্ডটি লোকসানের স্থলে মুনাফা দেখিয়েছে। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছে আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড।

আইএফআইএল ইসলামিক মিউচ্যুয়াল ফান্ড-০১: ৩০ জুন,২০২০ সমাপ্ত অর্থবছরে আইএফআইএল ইসলামিক মিউচ্যুয়াল ফান্ড-ওয়ান প্রভিশন রেখেছে ৫ কোটি ৯৮ লাখ ৯০ হাজার ৭৭১ টাকা। কিন্তু ফান্ডটির প্রয়োজন অনুযায়ী প্রভিশন রাখা দরকার ছিল ৪৬ কোটি ৮৩ লাখ ৮৮ হাজার ৫০৯ টাকা। এক্ষেত্রে ফান্ডটির শর্টফল প্রভিশন দাঁড়িয়েছে ৪০ কোটি ৮৪ লাখ ৯৭ হাজার ৭৩৮ টাকা। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছে আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড।

আইসিবি এমসিএল সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড:

৩০ জুন,২০২০ সমাপ্ত অর্থবছরে আইসিবি এমসিএল সোনালী ব্যাংক লিমিটেড ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড প্রভিশন রেখেছে ৬ কোটি ৩০ লাখ ৮৮ হাজার ১৬৩ টাকা। কিন্তু ফান্ডটির প্রয়োজন অনুযায়ী প্রভিশন রাখা দরকার ছিল ৪৫ কোটি ৭৮ লাখ ৪২ হাজার ৮৯৪ টাকা। এক্ষেত্রে ফান্ডটির শর্টফল প্রভিশন দাঁড়িয়েছে ৩৯ কোটি ৬৭ লাখ ৫৪ হাজার ৭৩১ টাকা। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছে আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড।

আইসিবি এমসিএল থার্ড এনআরবি ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড:

৩০ জুন,২০২০ সমাপ্ত অর্থবছরে আইসিবি এমসিএল থার্ড এনআরবি ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড প্রভিশন রেখেছে ৯ কোটি ৯০ লাখ ৩৩ হাজার ৬৯৮ টাকা। কিন্তু ফান্ডটির প্রয়োজন অনুযায়ী প্রভিশন রাখা দরকার ছিল ৬০ কোটি ৫১ লাখ ২০ হাজার ৯১১ টাকা। এক্ষেত্রে ফান্ডটির শর্টফল প্রভিশন দাঁড়িয়েছে ৫১ কোটি ৬০ লাখ ৮৭ হাজার ২১৩ টাকা। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছে আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড।

আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড:ওয়ান

৩০ জুন,২০২০ সমাপ্ত অর্থবছরে আইসিবি এমপ্লয়িজ প্রভিডেন্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড:ওয়ান প্রভিশন রেখেছে ৮ কোটি ৬৫ লাখ ৯ হাজার ৪২৬ টাকা। কিন্তু ফান্ডটির প্রয়োজন অনুযায়ী প্রভিশন রাখা দরকার ছিল ৪৭ কোটি ২৮ লাখ ২৪ হাজার ৯৪ টাকা। এক্ষেত্রে ফান্ডটির শর্টফল প্রভিশন দাঁড়িয়েছে ৩৮ কোটি ৬৩ লাখ ১৪ হাজার ৬৬৮ টাকা। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছে আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড।

ফনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড:

৩০ জুন,২০২০ সমাপ্ত অর্থবছরে ফনিক্স ফাইন্যান্স ফার্স্ট মিউচ্যুয়াল ফান্ড প্রভিশন রেখেছে ৬ কোটি ৪৬ লাখ ৯৭ হাজার ২৫৫ টাকা। কিন্তু ফান্ডটির প্রয়োজন অনুযায়ী প্রভিশন রাখা দরকার ছিল ৩৬ কোটি ২২ লাখ ৩০ হাজার ৪৩৯ টাকা। এক্ষেত্রে ফান্ডটির শর্টফল প্রভিশন দাঁড়িয়েছে ২৯ কোটি ৭৫ লাখ ৩৩ হাজার ১৮৪ টাকা। ফান্ডটির সম্পদ ব্যবস্থাপক হিসেবে কাজ করছে আইসিবি অ্যাসেট ম্যানেজমেন্ট কোম্পানি লিমিটেড।

 

ডেইলি শেয়ারবাজার ডটকম/মাজ./নি

 

Check Also

বেরিয়ে এলো আলহাজ্বের গোপন তথ্য: অর্থ আত্মসাৎয়ের পায়তারা

ডেইলি শেয়ারবাজার ডটকম: পুঁজিবাজারে তালিকাভুক্ত হওয়ার পর নানা অনিয়ম আর অব্যবস্থাপনার অভিযোগ রয়েছে আলহাজ্ব টেক্সটাইলের …

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *